প্রেস রিলিজ

আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবস উপলক্ষে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস এর বাণী

২৯ মে ২০২২

এ বছর আমরা অংশীদারীত্বের শক্তির ওপর আলোকপাত করেছি।

জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে শান্তিরক্ষী হিসেবে ১৯৪৮ সাল থেকে এ পর্যন্ত কাজ করা ১০ লাখেরও বেশি নারী ও পুরুষকে আজ আমরা শ্রদ্ধা জানাই।

শান্তির লক্ষে কাজ করতে গিয়ে বীরত্বের সাথে জীবন উৎসর্গ করা প্রায় ৪ হাজার ২০০ জন নারী ও পুরুষকে আমরা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি।

এবং আমরা বহু পুরোনো এক সত্যের মুখোমুখি: শান্তিকে কখনও অবহেলা করা যাবে না।

শান্তি হলো পুরস্কার।

জাতিসংঘের পতাকাতলে বর্তমানে কাজ করা ৮৭ হাজার বেসামরিক কর্মী, পুলিশ ও সামরিক বাহিনীর সদস্যদের প্রতি আমরা গভীরভাবে কৃতজ্ঞ, যাঁরা বিশ্বজুড়ে শান্তির মাহাত্ম অনুধাবনে সহযোগিতা করতে কাজ করে চলেছেন।

তাঁরা অনেক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হন। শান্তিরক্ষীদের বিরুদ্ধে ক্রমবর্ধমান সহিংসতা তাঁদের কাজকে আরও বিপজ্জনক করে তুলেছে। মহামারির কারণে বিধিনিষেধ এই পরিস্থিতিকে আরও কঠিন করেছে। কিন্তু জাতিসংঘ শান্তিরক্ষীরা শান্তির অংশীদার হিসেবে স্বাতন্ত্র্যের সাথে কাজ অব্যাহত রেখেছেন।

এ বছর আমরা অংশীদারীত্বের শক্তির ওপর আলোকপাত করেছি।

আমরা জানি যে শান্তি তখনই অর্জিত হয়, যখন সরকার ও সমাজ আলোচনার মাধ্যমে মতপার্থক্য সমাধানে, অহিংস সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠায় এবং সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা জনগোষ্ঠীকে রক্ষায় সংঘবদ্ধ হয়।

বিশ্বজুড়ে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষীরা শান্তিপ্রতিষ্ঠায়, বেসামরিক নাগরিকদের রক্ষায়, মানবাধিকার ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় এবং কোটি মানুষের জীবনমান উন্নয়নে সদস্য রাষ্ট্র, নাগরিক সমাজ, মানবিক সহায়তা দানকারী, সংবাদমাধ্যম, যে সমাজকে তাঁরা সেবা দেন তাদের সঙ্গে এবং অন্য আরও অনেকের সঙ্গে কাজ করছেন।

সবার জন্য আরও শান্তিপূর্ণ ও সমৃদ্ধ ভবিষ্যৎ গঠনে, সমাজকে সংঘাত মুক্তকরণে তাঁদের এই নিবেদিতপ্রাণ কাজকে আমরা আজ এবং প্রতিদিন অভিবাদন জানাই।

আমরা তাঁদের কাছে চিরকাল ঋণী।

আন্তর্জাতিক জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী দিবস উপলক্ষে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস এর বাণী

এই উদ্যোগে জাতিসংঘের যে সকল সংস্থা যুক্ত

জাতিসংঘ
জাতিসংঘ- বিবরণ

এই উদ্যোগের মাধ্যমে আমরা যে অভীষ্টগুলোকে সমর্থন দিচ্ছি