প্রেস রিলিজ

বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবস উপলক্ষ্যে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের বাণী, ১৫ জুলাই ২০২২

১৫ জুলাই ২০২২

একসঙ্গে আসুন আমরা আরও ন্যায়সঙ্গত ও বর্ধনশীল শ্রমশক্তি তৈরি করি, টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট পুনরুদ্ধার করি এবং কেউ যেন পেছনে পড়ে না থাকে, তা নিশ্চিত করি।

আজ, আমরা ভবিষ্যতের কাজের জন্য যুব দক্ষতার রূপান্তরের গুরুত্বের ওপর আলোকপাত করছি।

জলবায়ু পরিবর্তন, সংঘাত থেকে শুরু করে দারিদ্র পর্যন্ত আন্তঃসংযুক্ত বৈশ্বিক সংকট ব্যাপকভাবে তরুণ প্রজন্মের ওপর প্রভাব ফেলেছে। কোভিড-১৯ মহামারি এসব সংকটকে আরও ঘণীভূত করেছে। শুধুমাত্র ২০২০ সালেই তরুণদের কর্মসংস্থান ৩ কোটি ৯০ লাখ কমেছে। আজ, ২ কোটি ৪০ লাখ শিশু-কিশোর বিদ্যালয়ে না ফেরার ঝুঁকিতে রয়েছে।

মহামারি শ্রমবাজারের পরিবর্তনকেও তরাণ্বিত করেছে, অনিশ্চয়তা সৃষ্টি করেছে এবং ডিজিটাল বিভক্তি আরও বাড়িয়েছে। আমাদের অবশ্যই তরুণ জনগোষ্ঠীর কার্যকর ও অন্তর্ভূক্তিমূলক শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও জীবনভর শেখার অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। এর জন্য তরুণদের দক্ষতা উন্নয়নে জোর দেওয়ার পাশাপাশি কারিগরি শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ, উচ্চগতির ইন্টারনেট এবং ডিজিটাল দক্ষতার জন্য বিনিয়োগ করতে হবে।

এ জন্যই আমি আগামী সেপ্টেম্বরে ট্রান্সফরমিং এডুকেশন সামিট-এর আয়োজন করেছি, যাতে বিশ্বনেতা, তরুণ ও শিক্ষা নিয়ে কাজ করা অন্যান্যরা এক জায়গায় সমবেত হবেন। তরুণেরা পরিবর্তনের চালিকাশক্তি এবং তাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে যেকোনো সিদ্ধান্তে তাদের অবশ্যই পুরোপুরি অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে। জাতিসংঘ যুব ২০৩০ কৌশলের দিকনির্দেশনা অনুসারে ওই সম্মেলনে এবং তার আগে-পরে আমি সবার প্রতি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যুব দক্ষতা উন্নয়নে কাজ করার আহ্বান জানাই।

একসঙ্গে আসুন আমরা আরও ন্যায়সঙ্গত ও বর্ধনশীল শ্রমশক্তি তৈরি করি, টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট পুনরুদ্ধার করি এবং কেউ যেন পেছনে পড়ে না থাকে, তা নিশ্চিত করি।

আপনাদের জানাই বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবসের শুভেচ্ছা।

বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবস উপলক্ষ্যে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের বাণী, ১৫ জুলাই ২০২২

এই উদ্যোগে জাতিসংঘের যে সকল সংস্থা যুক্ত

জাতিসংঘ
জাতিসংঘ- বিবরণ

এই উদ্যোগের মাধ্যমে আমরা যে অভীষ্টগুলোকে সমর্থন দিচ্ছি