প্রেস রিলিজ

আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস উপলক্ষ্যে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসের বাণী

২১ সেপ্টেম্বর ২০২২

এ বছরের আন্তর্জাতিক শান্তি দিবসের প্রতিপাদ্য হলো – বর্ণবাদ বন্ধ হোক, শান্তি প্রতিষ্ঠা পাক। এই প্রতিপাদ্য আমাদের স্মরণ করিয়ে দেয় যে বর্ণবাদ অনেকভাবে মানুষের হৃদয় ও মনকে বিষাক্ত করে তোলে এবং আমরা যে শান্তির অনুসন্ধান করছি, তা বিনষ্ট করে।

শান্তি একটি মহৎ ও অত্যন্ত প্রয়োজনীয় লক্ষ্য এবং তা অর্জন সম্ভব কেবল সব মানুষের জন্য অপেক্ষাকৃত ভালো ও ন্যায্য বিশ্ব গঠনের মাধ্যমে।

যদিও অনেক জায়গায়ই, অনেক প্রেক্ষাপটেই আমরা শান্তি প্রতিষ্ঠায় ব্যর্থ হচ্ছি।

এ বছরের আন্তর্জাতিক শান্তি দিবসের প্রতিপাদ্য হলো – বর্ণবাদ বন্ধ হোক, শান্তি প্রতিষ্ঠা পাক। এই প্রতিপাদ্য আমাদের স্মরণ করিয়ে দেয় যে বর্ণবাদ অনেকভাবে মানুষের হৃদয় ও মনকে বিষাক্ত করে তোলে এবং আমরা যে শান্তির অনুসন্ধান করছি, তা বিনষ্ট করে।

বর্ণবাদ মানুষের অধিকার ও মর্যাদা হরণ করে। এটি অসমতা ও অবিশ্বাসকে উসকে দেয়। এবং এটি এমন এক সময় মানুষকে একে অপরের থেকে দূরে ঠেলে দেয়, যখন আমাদের একক মানব পরিবার হিসেবে ফাটল ধরা এই বিশ্বটাকে মেরামত করতে পরস্পরের আরও কাছে আসা উচিত।

একে অপরের সঙ্গে না লড়ে আমাদের উচিত প্রকৃত শত্রুকে পরাস্ত করতে একসঙ্গে লড়াই করা। আমাদের প্রকৃত শত্রু হলো বর্ণবাদ, দারিদ্র্য, অসমতা, সংঘাত, জলবায়ু সংকট ও কোভিড-১৯ মহামারি।

যে অবকাঠামো বর্ণবাদকে টিকিয়ে রাখে, তা ভেঙে ফেলা উচিত আমাদের। আমাদের উচিত সর্বত্র মানবাধিকার আন্দোলনকে আরও জোরদার করা।

এবং আমাদের উচিত একতাবদ্ধ হয়ে বিদ্বেষপ্রসূত বক্তব্য ছড়ানো কণ্ঠকে স্তব্ধ করে দেওয়া এবং সত্য, বোঝাপড়া ও পারস্পরিক শ্রদ্ধার জন্য জোরেসোরে আওয়াজ তোলা।

গুরুত্বপূর্ণ এই দিবসে, যে সময়টায় ২৪ ঘণ্টার জন্য সহিংসতা বন্ধ থাকবে এবং যুদ্ধবিরতি চলবে, আমরা সব মানুষের প্রতি অস্ত্র নামিয়ে রাখার চেয়ে আরও বেশি কিছু করতে আবারও আহ্বান জানাচ্ছি।

মানুষ হিসেবে আমরা যে সংহতির বন্ধনে আবদ্ধ, তা পুনঃনিশ্চিত করতে এবং আরও সুন্দর, আরও শান্তিপূর্ণ বিশ্ব গঠনের কাজ শুরু করতে আমরা সবার প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

এই উদ্যোগে জাতিসংঘের যে সকল সংস্থা যুক্ত

জাতিসংঘ
জাতিসংঘ- বিবরণ

এই উদ্যোগের মাধ্যমে আমরা যে অভীষ্টগুলোকে সমর্থন দিচ্ছি