প্রেস রিলিজ

আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস উপলক্ষে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস এর বাণী

০১ অক্টোবর ২০২২

আমাদের অবশ্যই সব মানুষের জন্য সব বয়সে সামাজিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক অন্তর্ভূক্তি নিশ্চিত করতে হবে

আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবসে আমরা পরিবর্তিত বিশ্বে একশ কোটির বেশি প্রবীণ নারী-পুরুষের পুনর্বাসনের দিকে মনোযোগ দিতে চাই।

গত বছর আমরা নাটকীয় বিপর্যয় দেখেছি, যেখানে অনেক সময়ই সংকটের কেন্দ্রে পড়েছেন প্রবীণেরা।

কোভিড-১৯ মহামারি, ক্রমেই অবনতি ঘটতে থাকা জলবায়ু সংকট, ক্রমবর্ধমান সংঘাত ও ক্রমবর্ধমান দারিদ্র্যসহ নানা ধরনের চ্যালেঞ্জের মুখে প্রবীণ জনগোষ্ঠী বিশেষভাবে ঝুঁকিতে রয়েছে।

যদিও এসব হুমকির মুখে প্রবীণেরাই উল্লেখযোগ্য উদাহরণ সৃষ্টি করে আমাদের ঘুরে দাঁড়াতে অনুপ্রাণিত করেছেন।

২০৩০ সাল নাগাদ বিশ্বে ৬০ বছর বা তার বেশি বয়সী মানুষের সংখ্যা ১৪০ কোটি হবে।

সমাজ ও বৈশ্বিক সম্প্রদায় হিসেবে আমাদের কাজ হলো দীর্ঘায়ুর চ্যালেঞ্জগুলো চিহ্নিত করা এবং এর সম্ভাবনাগুলো প্রকাশ ও কাজে লাগানো।

আমাদের অবশ্যই সব মানুষের জন্য সব বয়সে সামাজিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক অন্তর্ভূক্তি নিশ্চিত করতে হবে।

টেকসই উন্নয়ন অভীষ্টে এই প্রতিশ্রুতির উল্লেখ আছে।

জীবনভর শিক্ষা, শক্তিশালী সামারিক সুরক্ষা, দীর্ঘমেয়াদে মানসম্পন্ন স্বাস্থ্যসেবাপ্রাপ্তি, ডিজিটাল বিভক্তি দূরীকরণ, আন্তঃপ্রজন্ম সহযোগিতা, মর্যাদা ও শ্রদ্ধাবোধ জরুরি।

প্রবীণ জনগোষ্ঠী জ্ঞান ও অভিজ্ঞতার অসাধারণ ভাণ্ডার।

আমাদের অবশ্যই তাদের সংশ্লিষ্টতা, পুরোদমে অংশগ্রহণ এবং জরুরি ভূমিকা পালন নিশ্চিত করতে হবে।

একসঙ্গে আসুন আমরা আরও অন্তর্ভূক্তিমূলক ও বয়সবান্ধব সমাজ এবং আরও সহনশীল বিশ্ব গড়ে তুলি।

ধন্যবাদ

 

এই উদ্যোগে জাতিসংঘের যে সকল সংস্থা যুক্ত

জাতিসংঘ
জাতিসংঘ- বিবরণ

এই উদ্যোগের মাধ্যমে আমরা যে অভীষ্টগুলোকে সমর্থন দিচ্ছি